সরফরাজের সঙ্গে উত্তপ্ত হওয়া উচিত হয়নি, বুঝছেন আফ্রিদি

চলতি পাকিস্তান সুপার লিগের ম্যাচে সরফরাজ আহমেদের সঙ্গে মারমুখী হয়ে তীব্র বাক-বিতন্ডায় জড়ালেন পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদি। সেসময় কথা কাটাকাটিতে জড়ানো পেসার আফ্রিদি টুইটারে নিজের পরবর্তী অনুভূতি প্রকাশ করেছেন। সরফরাজ রিটুইট করে বলেছেন, মাঠে যা ঘটেছে তা মাঠেই থাকুক।
গত ১৫ জুনের ঘটনার পর শাহীন শাহ আফ্রিদি টুইট করে বলেছেন,

‘সাইফি ভাই (সরফরাজ আহমেদ) আমাদের সকলের গর্ব। তিনি আমার অধিনায়ক ছিলেন এবং থাকবেন। সেদিন খেলায় যা ঘটেছিল তা ছিল মুহুর্তের উত্তাপ। তখন আমার চুপ থাকা উচিত ছিল। আমি সর্বদা আমার সিনিয়রদের শ্রদ্ধা এবং প্রার্থনা করি। এবং সরফরাজ ভাইয়ের জন্য শুভকামনা।’
সরফরাজ আহমেদ রিটুইট করে লিখেছেন,

‘এ সবই ভাল ভাই। মাঠে যা কিছু ঘটেছিল তা মাঠেই থাকা উচিত। তুমিও পাকিস্তানের তারকা। আল্লাহ তোমাকে জীবনে আরও বেশি সাফল্য দান করুন। তুমি আমার কাছে এক ছোট ভাই। সবকিছু ঠিক আছে।’

চলতি পিএসএলে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স বনাম লাহোর কালান্দার্স ম্যাচে ঘটে এমন ঘটনা। কোয়েটা ইনিংসের ১৯তম ওভারের শেষ বলে আফ্রিদি বাউন্সার দেন সরফরাজকে। বলটি ঠিকমতো সামলাতে পারেননি সরফরাজ। বল গিয়ে লাগে তাঁর হেলমেটে। থার্ডম্যান অঞ্চলে বল চলে গেলে দুই ব্যাটসম্যান সরফরাজ ও হাসান খান প্রান্ত বদল করে অতিরিক্ত হিসেবে ১ রান সংগ্রহ করেন। যদিও বলটিকে নো-বল হিসেবে চিহ্নিত করেন আম্পায়ার আলিম দার।

নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে যাওয়ার পর সরফরাজ বোলার আফ্রিদিকে কিছু একটা বলেন, যা ভালোভাবে নেননি এই পেসার। তিনি সরফরাজের পিছু ধাওয়া করেন মুখোমুখি হওয়ার জন্য। পরিস্থিতি উত্তপ্ত উপলব্ধি করেই আম্পায়ার দু’জনকে সরিয়ে দেন। যদিও আফ্রিদিকে রীতিমতো ক্ষুব্ধ দেখায়।